1. a.hossainmcj@gmail.com : Akter Hossain : Akter Hossain
  2. Gram.bangla@yahoo.com : bigboss : Tanjim
  3. billal.mcj1@gmail.com : Billal Hosen : Billal Hosen
  4. mdkutubcou@gmail.com : গ্রাম বাংলা : গ্রাম বাংলা ডেস্ক
  5. sanymcj@gmail.com : GramBanglaBD : Gram Bangla
  6. muhaimin.mcj@yahoo.com : Muhaimin Noman : Muhaimin Noman
  7. mohiuddinrasel1922@gmail.com : Mohi Uddin Rasel : Mohi Uddin Rasel
  8. rayhan.mcj@gmail.com : Abu Bakar Rayhan : Abu Bakar Rayhan
কোটা থাকছেনা ৪০তম বিসিএসে, এবারই ছিলো কোটার সর্বশেষ ব্যবহার - দৈনিক গ্রাম বাংলা    
সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০, ১১:২৭ পূর্বাহ্ন

কোটা থাকছেনা ৪০তম বিসিএসে, এবারই ছিলো কোটার সর্বশেষ ব্যবহার

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১ জুলাই, ২০২০
  • ৯০ বার পঠিত

গ্রামবাংলা ডেস্ক:

শেষ হলো বিসিএসের মাধ্যমে দেশে সরকারি কর্মকর্তা নিয়োগে কোটা পদ্ধতির ব্যবহার। এ কোটা পদ্ধতিতে সর্বশেষ মঙ্গলবার (৩০ জুন) ৩৮তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করেছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। ফলাফলে ২ হাজার ২০৪ জনকে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগের সুপারিশ করে পিএসসি। এটিই ছিলো কোটা পদ্ধতির মাধ্যমে সর্বশেষ বিসিএসের ফলাফল।

২০১৮ সালে সাধারণ আন্দোলনের মুখে সরকার বাতিল করে কোটা প্রথা।

পিএসসির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাদিক জানিয়েছে, এখন থেকে কোন বিসিএসে কোটা পদ্ধতি আর থাকছে না। এমনকি, কোটা পদ্ধতি বাতিলের প্রায় এক মাস আগে ৪০তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হলেও সেখানেও কোটা পদ্ধতি থাকবেনা।  এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ফলে এখন থেকে সাধারণ চাকরিপ্রার্থীদের চাকরির সুযোগ আরও বাড়লো।

পিএসসির চেয়ারম্যান আরো বলেন, কোটা বিলোপের মাসখানেক আগে ৪০তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়। তবে আমরা তখন বলেছিলাম সরকারের সর্বশেষ সিদ্ধান্ত অনুসরণ করবো।

পিএসসি সূত্র আরো জানিয়েছে, এতোদিন ৫৫ শতাংশ কোটা সাথে ৪৫ শতাংশ মেধার মিশ্রণে ৩৮তম বিসিএসের ফলাফল দেওয়া হয়েছে। তবে কারিগরী ক্যাডারে কোটার প্রার্থী পাওয়া না গেলে সাধারণ প্রার্থীদেরকে মনোনীত করা হয়েছে।

প্রসঙ্গ, ১৯৭২ সালে সর্বপ্রথম সরকারি চাকরিতে কোটা ব্যবস্থার প্রবর্তন করা হয়। এই কোটা ব্যবস্থার সংস্কারের দাবিতে ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে সারাদেশে ধারাবাহিক আন্দোলন শুরু হয়। এপ্রিলে সেই আন্দোলন ব্যাপক রূপ ধারণ করে। দেশের সবকয়টি বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজে ছড়িয়ে পড়ে এ কোটা সংস্কার আন্দোলন। তারপর পুলিশ কোটা সংস্কার আন্দোলন কর্মীদের ব্যাপক ধরপাকড় শুরু করেন এবং তখন অনেকেই আন্দোলনকর্মীদের পাশে দাঁড়ান।

ফলাফল হিসেবে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে কোটা ব্যবস্থা বাতিল ঘোষণা করে সরকার।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..