1. a.hossainmcj@gmail.com : Akter Hossain : Akter Hossain
  2. Gram.bangla@yahoo.com : bigboss : Tanjim
  3. billal.mcj1@gmail.com : Billal Hosen : Billal Hosen
  4. mdkutubcou@gmail.com : MD Kutub Uddin : MD Kutub Uddin
  5. sanymcj@gmail.com : GramBanglaBD : Gram Bangla
  6. muhaimin.mcj@yahoo.com : Muhaimin Noman : Muhaimin Noman
  7. mohiuddinrasel1922@gmail.com : Mohi Uddin Rasel : Mohi Uddin Rasel
  8. rayhan.mcj@gmail.com : Abu Bakar Rayhan : Abu Bakar Rayhan
ঘুরতে গিয়ে করোনা হলে পাবেন ৩ হাজার ডলার - দৈনিক গ্রাম বাংলা    
রবিবার, ০৫ জুলাই ২০২০, ০৭:১৬ অপরাহ্ন

ঘুরতে গিয়ে করোনা হলে পাবেন ৩ হাজার ডলার

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৩০ জুন, ২০২০
  • ৬৫ বার পঠিত

বিশ্ব ডেস্ক:

করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘ লকডাউনের পর পর্যটনের জন্য ধীরে ধীরে উন্মুক্ত হচ্ছে বিশ্ব। পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে বিভিন্ন দেশ বিভিন্ন উদ্যোগ নিচ্ছে। এর মধ্যে কিছু আয়োজন চমক লাগানো।

উজবেকিস্তান পর্যটকদের আকর্ষণ করতে এমনি ব্যতিক্রম সুযোগ দিচ্ছে। দেশটিতে ভ্রমণের সময় যদি কেউ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়, তাহলে তিনি পাবেন তিন হাজার ডলার (২ লাখ ৬০ হাজার টাকা)।

পর্যটক টানতে সম্প্রতি উজবেকিস্তানের প্রেসিডেন্ট শাভকাত মিরজায়োইয়েভ অভিনব এ পুরস্কারের কথা ঘোষণা করেছেন। উজবেক সরকার আত্মবিশ্বাসী, বেড়াতে এসে কেউ করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হবে না। তাই এমন বড় অঙ্কের অফার দিচ্ছে এ সরকার। খবর দ্যা টেলিগ্রাফের।

উজবেকিস্তান এরমধ্যে ‘সেফ ট্রাভেল গ্যারান্টিড’ (নিরাপদ ভ্রমণের নিশ্চয়তা) শীর্ষক প্রচারণা শুরু করেছে। মূলত এর আওতায় কোনও বিদেশি ভ্রমণকালে কোভিড-১৯ রোগে ভুগলে তিন হাজার ডলার দেয়া হবে। গত ২৩ জুন উজবেকিস্তানের প্রেসিডেন্ট এ সংক্রান্ত একটি আদেশে স্বাক্ষর করেন।

চিকিৎসা ব্যয়ের কথা ভেবে টাকার অঙ্ক নির্ধারণ করেছে দেশটির সরকার। সেখানে করোনা রোগীদের চিকিৎসা করাতে তিন হাজার ডলারের মত খরচ হয়। যুক্তরাজ্যের উজবেকিস্তান পর্যটন দূত সোফি ইবোটসন বলেন, ‘উজবেকিস্তানে ভ্রমণের ব্যাপারে আমরা পর্যটকদের আশ্বস্ত করি।

সরকার আত্মবিশ্বাসী, পর্যটন খাতে কার্যকর হওয়া নতুন সুরক্ষা ও স্বাস্থ্য বিধির সুবাদে করোনা ঝুঁকি এড়ানো যাবে। তাই প্রেসিডেন্ট কথা দিয়েছেন, কেউ কোভিড-১৯ রোগে ভুগলে তাকে ক্ষতিপূরণ দিবেন।’ তবে এ সুবিধা পেতে কয়েকটি শর্তও দেয়া হয়েছে।

তিন হাজার ডলার পেতে অবশ্যই উজবেকিস্তানের স্থানীয় ট্যুর গাইড নিয়ে ভ্রমণে যেতে হবে। গাইড, হোটেল ও পর্যটন স্পটগুলোয় স্থানীয় সরকারের কাছ থেকে পাওয়া সনদ থাকতে হবে। সামাজিক দূরত্বসহ সব ধরনের সুরক্ষা ব্যবস্থা মেনে চলার কথা উল্লেখ রয়েছে এতে।

কোনো প্রতিষ্ঠান স্বাস্থ্যবিধি না মানলে কিংবা জীবাণু সংক্রমণের উৎস প্রমাণিত হলে পর্যটকদের চিকিৎসা ব্যয় তাদের বহন করতে হবে । উজবেকিস্তান শুধু কম ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর পর্যটকদের বেড়ানোর সুযোগ দিচ্ছেন। এর মধ্যে রয়েছে চীন, ইসরাইল, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়া। যুক্তরাজ্য ও ইউরোপ থেকে যাওয়া সবাইকে আগে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

গত মার্চের মাঝামাঝিতে লকডাউন করেছিলো উজবেকিস্তান। বিশ্বে সবচেয়ে কম করোনা আক্রান্ত দেশগুলোর অন্যতম দেশটি। তিন কোটি ৩০ লাখ জনসংখ্যার দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮ হাজার ৩১ জন। মারা গেছে ২২ জন।

নানা নকশার টাইলস সমৃদ্ধ সিল্ক রোড স্থাপত্যের জন্য উজবেকিস্তান বিখ্যাত। গত কয়েক বছরে সেখানে পর্যটক সমাগম বিপুল বৃদ্ধি পেয়েছে। এর মূল কৃতিত্ব হলো ৮০টিরও বেশি দেশের পর্যটকদের জন্য ভিসামুক্ত পদ্ধতি।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..