1. a.hossainmcj@gmail.com : Akter Hossain : Akter Hossain
  2. Gram.bangla@yahoo.com : bigboss : Tanjim
  3. billal.mcj1@gmail.com : Billal Hosen : Billal Hosen
  4. mdkutubcou@gmail.com : গ্রাম বাংলা : গ্রাম বাংলা ডেস্ক
  5. sanymcj@gmail.com : GramBanglaBD : Gram Bangla
  6. muhaimin.mcj@yahoo.com : Gram Bangla : Muhaimin Noman
  7. mohiuddinrasel1922@gmail.com : Mohi Uddin Rasel : Mohi Uddin Rasel
  8. rayhan.mcj@gmail.com : Abu Bakar Rayhan : Abu Bakar Rayhan
পিপিই চুরি করে করোনায় আক্রান্ত চোরটি - দৈনিক গ্রাম বাংলা    
বুধবার, ১২ অগাস্ট ২০২০, ০৬:২৭ পূর্বাহ্ন

পিপিই চুরি করে করোনায় আক্রান্ত চোরটি

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২ আগস্ট, ২০২০
  • ২৭ বার পঠিত

গ্রামবাংলা ডেস্ক:

রেইনকোট মনে করে হাসপাতাল থেকে পিপিই চুরি করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে চোর। এ ঘটনা ঘটেছে ভারতের মহারাষ্ট্রের নাগপুরে। খবর জি নিউজ।

জানা যায়, নাগপুরের এক ফল বিক্রেতা গত বুধবার মদ্যপ অবস্থায় দুর্ঘটনার কবলে পড়েন। ঘটনাস্থল থেকে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে চোট গুরুতর না হওয়ায় হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

বাড়ি ফেরার সময় হাসপাতালে পরে থাকা একটি পিপিই চুরি করে আনেন ওই ব্যক্তি। এরপরই স্বাস্থ্য দপ্তরের ওই ফল বিক্রেতার সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

তিনি জানায়, রেইনকোট মনে করে পিপিই চুরি করেছে। পরে ওই পিপিই উদ্ধার করে জ্বালিয়ে দেয়া হয়। ফল বিক্রেতার করোনা টেস্ট করলে পজেটিভ আসে।

ওই ফল বিক্রেতার সংস্পর্শে যারা এসেছিলেন তাদেরও করোনা টেস্ট করানো হয়। কিন্তু কেউ আক্রান্ত হননি।

আরো পড়ুন:

এখন পর্যন্ত কোনো হাজি করোনা আক্রান্ত হননি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

শেষ হওয়ার পথে পবিত্র হজের মূল আনুষ্ঠানিকতা বা কার্যক্রম। ভালো খবর হচ্ছে এখনও পর্যন্ত কোনো হাজি করোনায় সংক্রমিত হননি। শনিবার (০১ আগস্ট) স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানিয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের সহকারী মন্ত্রী ডা. মুহাম্মদ আল-আবদালি জানান, হাজিদের করোনায় আক্রান্তের কোনো ঘটনা ঘটেনি। জনস্বাস্থ্যের ওপর প্রভাব ফেলতে এমন রোগেও কেউ সংক্রমিত হননি।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লেফটেনেন্ট কর্নেল তালাল আল-শালহুব জানিয়েছেন, হাজিরা আরাফাত ময়দানে দাঁড়ানো থেকে শুরু করে মুজদালিফায় অবস্থান পর্যন্ত সব কিছু নিরাপদে, সুরক্ষিত অবস্থায় এবং প্রশান্তির সঙ্গে সব আনুষ্ঠানিকতা পালন করেছেন।

হজ মন্ত্রীর প্রধান পরিকল্পনা ও নীতি নির্ধারণী বিষয়ক উপদেষ্টা ড. ওমর আল-মাদ্দাহ জানিয়েছেন, ইদুল আজহার প্রথম দিন সকাল পর্যন্ত হাজিরা মুজদালিফায় অবস্থান করেছিলেন। এর আগের দিন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় তারা সেখানে পৌঁছে মাগরিক ও ইশার নামাজ একসঙ্গে আদায় করেন। ভোর ৫টায় তারা মুজদালিফা থেকে জামারত ব্রিজে শয়তানকে পাথর নিক্ষেপ করতে যান। এটি শেষ করে হাজিরা মসজিদুল হারামে সকাল ৭টায় তাওয়াফ আল-ইফাদাহ করতে প্রবেশ করবে।

 

 

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..